গরমে ত্বকের যত্ন নেওয়ার উপায় | পারফেক্ট ড্রাই স্কিন কেয়ার রুটিন

গরম কাল আসলেই সকলে আমরা প্রচণ্ড গরমে হাঁসফাঁস করি। আর রোদে বেরোলে আমাদের ত্বকের বারোটা বেজে যায়। তাই এই গরমে আমাদের ত্বকের একটু বাড়তি যত্ন নেওয়া উচিত।চলুন জেনে নাওয়া যাক আমরা এই গরমে কিভাবে বাড়তি ত্বকের  যত্ন নিব ?

আমরা সকলেই জানি যে মুখের ত্বক সাধারণত ৪ ধরনের হয়,
ড্রাইস্কিন, অয়েলস্কিন, নরমালস্কিন, কম্বিনেসনস্কি

ড্রাইস্কিন যাদের তাদের জন্য গ্রীষ্মকাল সাপে বর হয়ে আসে।গরমে এদের ত্বক অনেক উজ্জ্বল হয়ে উঠে।কিন্তু বাকি স্কিন টাইপ দেড় জন্য গ্রীষ্মকাল সমসসার সময়।গরমের সময় সকলের উচিত প্রচুর পরিমানে জল পান করা,ডাবের জল পান করা।এতে আমাদের ত্বক ভিতর থেকে জেল্লা ভাব ফুটে উঠে।এই সময় মেকাপ লাগিয়ে না থাকাই ভালো।লাগালেও ৪-৫ ঘণ্টার মধ্যে মুখের মেকাপ ভালো করে পরিস্কারপ করে নিতে হবে।

গরমে ত্বকের বিশেষ যত্নঃ

প্রথমেই সকালে ঘুম থেকে উঠে ভালো ভাবে মুখে জলের ঝাপটা দিতে হবে।এবং এতপর এলোভেরা সমৃদ্ধ ফেশওয়াশ দিয়ে মিখ পরিস্কার করতে হবে।দ্বিতিয় ধাপে টোনার দিয়ে মুখ টা ভালো করে মেসেজে করতে হবে।নরমাল স্কিন হলে গোলাপ জল লাগিয়ে নিতে পারেন। তৃতীয় ধাপে একটা ভালো মইসচারাইজার দিয়ে মুখটা পরিস্কার করে নিতে হবে।

গরমে ত্বকের যত্ন নেওয়ার উপায়

বিশেষ ভাবে মনে রাখার বিষয়ঃ

১।রোদে বাইরে বেরোলে সান স্কিন ব্যবহার করে বাইরে বের হতে হবে।আর সান স্কিন কেনার সময় লক্ষ রাখতে হবে বেশি SPF সমৃদ্ধ সান স্কিন কিনা।

২।রোদ থেকে বাড়ি ফিরে বরফ দিয়ে মুখ ঘষে নিয়ে খুব আরাম পাবেন।তবে সব চেয়ে ভালো হয় এলোভেরা রস আর গোলাপ এর জল দিয়ে আইসক্রিম বানিয়ে  করলে।

৩। প্রচণ্ড গরমে বাইরে বের হলে ছাতা নিয়ে বের হবেন।

৪।গরমে আরেকটা সমস্যা হল প্রচণ্ড ঘাম।এর থেকে বাচার জন্যে DEODORANT ব্যবহার করতে হবে।গোসলের সময় পানিতে ফিতকিরি মিশিয়ে গোসল করতে ঘাম কম হয়।এছাড়া এই সময় পাতলা সূতি কাপর পরা ভালো।

৫।গরমে মেকাপ বেশি গাড় না করাই ভালো।

৬।পরজাপ্ত ঘুম ত্বকের জেল্লা বারিয়ে দেয়।দৈনিক অবশ্যই ৭-৮ ঘণ্টা ঘুম অবশ্যই প্রয়োজন।

৭।এলোভেরা জেল বেশি পরিমানে ব্যবহার করবেন।

পারফেক্ট ড্রাই স্কিন কেয়ার রুটিন

আমরা সবাই কেন জানও শীতের সময় যেমন ড্রাই স্কিনের কেয়ার টা নিয়ে থাকি গ্রীষ্মের সময় সেই কেয়ার টা নেই না।জানেন কি এই গ্রীষ্মে যদি আমরা ড্রাই স্কিনের পুরোপুরি কেয়ার না নেই তাহলে কি কি সমস্যা দেখা দিতে পারে।

পারফেক্ট ড্রাই স্কিন কেয়ার রুটিন

১। সিরিয়াস ডিহাইড্রেশন
২। ফাইন লাইনস
৩। রিঙ্কেল এর সমস্যা দেখা দিতে পারে।তাই এই সময় চাই ভালো একটা কেয়ার রুটিন।

সারাদিনের ডার্ক ডাস্ট এবং সান স্কিন  পরিস্কার করতে সুধু একটি ফেসওআশ যথেস্ত নয়। তাই প্রথমে একটি ওয়েল ক্লিনযার ব্যবহার করুন।ত্বক ভালো ভাবে পরিস্কার করার জন্য ব্যবহার করুন একটি মাইল ফমিং ফেসওয়াস।
ড্রাই স্কিনের জন্যে বেস্ট হচ্ছে অ্যালকোহল বিহীন হাইড্রেটিং টোনার।
ড্রাই স্কিনের জন্য ব্যবহার করতে পারেন একটি রিচ কিন্তু নরেশিং নাইট ক্রিম। এতে করে সকালে উঠে আপ্নে পাবেন সফট একটা স্কিন।


Leave a Reply